নিয়মিত আদালত চালু না হলে কঠোর আন্দোলন

নিয়মিত আদালত চালু না হলে কঠোর আন্দোলন

আগামী ১ জুলাই থেকে ভার্চ্যুয়াল কোর্ট বন্ধ করে নিয়মিত আদালতের কার্যক্রম চালুর দাবি জানিয়েছেন ঢাকা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট মো. ইকবাল হোসেন। অন্যথায় সাধারণ আইনজীবীদের নিয়ে কঠোর আন্দোলনের হুঁশিয়ারিও দিয়েছেন তিনি।

মঙ্গলবার (৩০ জুন) ঢাকা আইনজীবী সমিতি ভবন প্রাঙ্গণে সাধারণ আইনজীবী পরিষদ নামে একটি সংগঠনের উদ্যোগে ভার্চ্যুয়াল কোর্ট বন্ধ ও সবধরনের আদালত খুলে দেয়ার দাবিতে আয়োজিত এক মানববন্ধন কর্মসূচি থেকে এই দাবি জানান তিনি।

মানববন্ধনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ইকবাল হোসেন বলেন, আমাদের দাবির প্রেক্ষিতে সীমিত আকারে স্বাস্থ্যবিধি মেনে নিয়মিত আদালত চালুর বিষয়ে সিদ্ধান্ত দিয়েছিলেন মাননীয় প্রধান বিচারপতি। এরপর কিছু আইনজীবীর দাবির কারণে ৩০ জুন পর্যন্ত ভার্চ্যুয়াল আদালত চালু রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছিল। আমরা সেই সিদ্ধান্ত মেনে নিয়েছিলাম। তবে এখন আর এটি অব্যাহত রাখা যায় না। তথাকথিত ভার্চ্যুয়াল আদালতের কারণে ঢাকা আইনজীবী সমিতির ২৫ হাজারের বেশি সদস্য খুবই দুরবস্থার মধ্যে আছেন। আদালত বন্ধ থাকায় বিচার প্রার্থীরাও ভোগান্তিতে আছেন।

তিনি আরও বলেন, এই অবস্থায় আইনজীবী ও বিচার প্রার্থীদের কথা বিবেচনা করে আমরা নিয়মিত আদালত চালুর দাবি জানাচ্ছি। আগামীকাল ১ জুলাই থেকে নিয়মিত আদালত চালু করা না হলে আইনজীবীদের নিয়ে ঐক্যবদ্ধভাবে আরও কঠোর আন্দোলন কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে।

মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন ঢাকা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট মো. খোরশেদ আলম। তিনি বলেন, রাষ্ট্রের নির্বাহী বিভাগ ও আইন বিভাগের কার্যক্রম যথারীতি চলছে। অথচ মানুষের শেষ আশ্রয়স্থল বিচার বিভাগের কার্যক্রম তিন মাসের বেশি সময় ধরে বন্ধ। এ অবস্থা চলতে পারে না।

ঢাকা আইনজীবী সমিতির শতাধিক সদস্য এই মানবন্ধনে অংশ নেন। তারা নিয়মিত আদালতের দাবিতে এ সময় বিভিন্ন শ্লোগানও দেন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *